২২ সেপ্টেম্বর, ২০২১ | ৭ আশ্বিন, ১৪২৮

লামায় ২৮ ইটভাটাকে সোয়া কোটি টাকা জরিমানা

প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০২১

নিজস্ব সংবাদদাতা

লামা উপজেলার ফাইতংয়ে একের পর এক পাহাড় কাটা ও অবৈধভাবে ইটভাটা পরিচালনার দায়ে অভিযান চালিয়েছে পরিবেশ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম অঞ্চল। গত মঙ্গলবার পরিবেশ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম অঞ্চলের কার্যালয়ের পরিচালক মফিদুল আলমের নেতৃত্বে এই অভিযান পরি চালিত হয়। অভিযানে ২৮টি ইটভাটাকে থেকে ১ কোটি ৮ লাখ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। এছাড়া প্রায় বান্দরবান জেলা প্রশাসন এবং লামা উপজেলা প্রশাসন অভিযান পরিচালনা করে আসছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, পরিবেশের ক্ষতিসাধন করায় বাংলাদেশ পরিবেশ সংরক্ষন আইন ১৯৯৫ (সংশোধিত ২০১০) এর ৭ ও ১২ ধারার আলোকে ইটভাটাগুলো থেকে জরিমানা আদায় করা হয়।

লামার ফাইতং ইউনিয়নের নতুন করে আবারো পাহাড় কেটে ইটভাটার জন্য মাটি সংগ্রহ করা হচ্ছে।

পরিবেশ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম অঞ্চলের কার্যালয়ের পরিচালক মফিদুল আলম এর পাঠানো এক বার্তায় জানা যায়, বান্দরবানের লামার ফাইতংয়ে অবস্থিত ডিবিএম ব্রিক্সকে ৫ লাখ টাকা, এ এম আর ব্রিক্সকে ৪ লাখ টাকা, এম এইছবি ব্রিক্সকে ৪ লাখ ৬০ হাজার টাকা, এমবিএস ব্রিক্সকে ৪ লাখ ৪০ হাজার টাকা, ওয়াই এসবি ব্রিক্সকে ১ লাখ টাকা, ইউ এম বি ব্রিক্সকে ৫ লাখ ১০ হাজার টাকা, বিবিএম ব্রিক্সকে ৩ লাখ ২০ হাজার টাকা, ফোর বিএম ব্রিক্সকে ১ লাখ ৮০ হাজার টাকা, এস বি ডব্লিউ ব্রিক্সকে ৫ লাখ টাকা, এমএমবি ব্রিক্সকে ৪ লাখ টাকা, এফ এ সি ব্রিক্সকে ৫ লাখ টাকা, ফাইভ বিএম ব্রিক্সকে ৪ লাখ ৮০ হাজার টাকা, এবিসি ব্রিক্সকে ৩ লাখ টাকা, থ্রি বিএম ব্রিক্সকে ৪ লাখ ৭০ হাজার টাকা, ইবিএম ব্রিক্সকে ১ লাখ টাকা, এসএবি ব্রিক্সকে ৩ লাখ ৬০ হাজার টাকা, এন আর বি ব্রিক্সকে ২ লাখ টাকা, কেবিসি ব্রিক্সকে ৪ লাখ ৫০ হাজার টাকা, এসকেবি ব্রিক্সকে ৩ লাখ ৩০ হাজার টাকা, ইউবিএম ব্রিক্সকে ৪ লাখ ৭০ হাজার টাকা, এবিসি-৩ ব্রিক্সকে ৫ লাখ ৫০ হাজার টাকা, এসবিএম ব্রিক্সকে ২ লাখ ৮০ হাজার টাকা, এএমবি ব্রিক্সকে ৩লাখ ২০ হাজার টাকা, এমবিআই ব্রিক্সকে ৫ লাখ ১০ হাজার টাকা, এইছবিএম ব্রিক্সকে ৪ লাখ ২০ হাজার টাকা, টিএইছবি ব্রিক্সকে ১ লাখ টাকা, বিবিসি ব্রিক্সকে ৭ লাখ টাকা, এবিএম ব্রিক্সকে ৫ লাখ টাকা। ২৮টি ইটভাটায় সর্বমোট ১ কোটি ৮ লাখ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

প্রসঙ্গত, বান্দরবানের লামা উপজেলার ফাইতং এলাকায় পাহাড় কেটে এবং বনের মধ্যেই প্রায় ২৯টি, লামা পৌরসভায় ১টি, গজালিয়া ইউনিয়নে ২টি, সরই ইউনিয়নে ১টি, ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নে ৬টি অবৈধ ইটভাটা গড়ে উঠেছে। সেসব ইটভাটায় বছরের পর বছর ধরে বনের কাঠ সাবাড় করে পুড়ানো হয় ইট।

বিজ্ঞাপন

ট্যাগ :